ভূতুড়ে বাংলো বাড়ি রহস্য (পর্ব-০১) - নাঈম চৌধুরি

পারলে ঠেকাও ( পর্বঃ ০৩ ) - দিশা মনি
ভূতুড়ে বাংলো বাড়ি রহস্য - নাঈম চৌধুরি
ভূতুড়ে বাংলো বাড়ি রহস্য - নাঈম চৌধুরি


গল্পঃ ভূতুড়ে বাংলো বাড়ি রহস্য
লেখকঃ Nayeem Chowdhury
প্রকাশকালঃ ২০২২
অনলাইন প্রকাশিত
পর্বঃ ০১



আমি তোমাকে অনেক ভালোবাসি বিশ্বাস করো সবসময় তোমাকে সুখি রাখবো আমার মত তুমি কাউকে পাবা না আর আমি সত্যি তোমাকে অনেক ভালোবাসি

আয়সা : আমি তরে ভালাবাসি না ছোট লোক কত বাড় তরে বলতে হবে তুই কি এক কথা বুঝিস না

নাইম : দেখো আমাকে রাগালে তোমার অবস্থা ভালো হবে না কিন্তু ....

আয়সা : কু/ত্তা/বা/ চ্চা তোর সাহস কি করে হয় ঠাসসসসসস আমাকে এইগুলো বলার আর কত তরে মারমুখী অমানুষ কোথাকার। ..

এম্বুলেন্স রহস্য ( পর্ব-০৫ )
সাথে সাথেই কানের নিচে দিলাম একটা আয়সা বললো তুই আমাকে ঠাসসস ঠাসসস ঠাসসস ঠাসসস কষে কষে ৪ টা থাপ্পড় মারার পর পকেট থেকে স্পে টা বের করে মারলাম আয়সার দিকে দেখলাম মাটিতে লুটিয়ে পড়েছে ঠোঁট ফেটে রক্ত বের হচ্ছে

মনে হয় অজ্ঞান হয়ে গেছে এই সুযোগ এই শালিরে ধর্ষণ করার সুযোগ পাবো সাথে সাথে আমার গাড়িতে কোলে করে তুলে নিলাম আর একটা টানে চলে আসলাম আমাদের পুরানো বাংলো বাড়িতে

আমি গাড়িটা পার্ক করে আয়সাকে কুলে তুলে এগোতে থাকলাম বাংলোর দিকে
আমার মনে অনেক চিন্তা যে আজকে আয়সাকে ভোগ করবো কত দিনের স্বপ্নটা পূরণ হবে কত আশা ছিল আয়সাকে নিয়ে সুখের ঘড় বাধবো কিন্তু এই মা*গির তো অনেক দেমাগ আজ সব দেমাগ বেড় করবো আজকে ওকে সারারাত ভোগ করবো ইসস কত মজাই না হবে

হঠাৎ নাঈমের চোখ আটকে যায় তাদের বাংলোর ( বাংলো মানে পুরানো বাড়ি যেখানো ৩,৪ বছর কেউ না গেলে যেমন হয় ) ছাদের উপর মনে হচ্ছে একটা মেয়ে দাঁড়িয়ে আছে দাঁড়িয়ে বলতে ভুল হবে মনে হচ্ছে ওখান থেকে ঝাঁপ দিবে সেই পজিশোন এ দাঁড়িয়ে আছে

আমি তো খুব অবাক কেনোনা এখানো গত ৪,৫ বছর কেউ আসে নাই তাইলে হঠাৎ করে এই মেয়েটা কি করে আমাদের পুরানো বাড়িতে আর চাবি ছাড়া এই বাড়িতে গেলোই বা কেন হঠাৎ লক্ষ্য করলাম মেয়েটা আমার দিকে তাকিয়ে রয়েছে সন্ধ্যা হওয়ায় কারণে দেখা যাচ্ছে না কিন্তু একটু একটু বুঝা যাচ্ছে যে এইটা একটা মেয়ে চুল ছেড়ে দিয়ে রয়েছে আর অদ্ভুত ব্যাপার হলো মেয়েটার চুল অন্য সবার থেকে আলাদা মনে
হচ্ছে কেউ তার চুল অনেক টেনেছে আর অনেক ছোট ছোট চুল আমি মেয়েটাকে দেখার জন্য যেই না মোবাইলে ফ্লাশ জ্বালিয়ে দেখতে লাগলাম তখনই দেখি সেখানে কোন মেয়েই নেই

কিন্তু এটা কেমনে হতে পারে সেখানে তো একটা মেয়ে ছিল তাইলে মেয়েটা হঠাৎ গেল কোথায় আর চোখের পলকে কেমনে হাওয়া হয়ে গেল যাইহোক আমি যেটা করতে আয়ছি সেটাই করি তাই দরজা টা খুলি কিন্তু আমার কাছে তো কোন চাবি নাই তাইলে কি করা যায় যায় একটা ইট বা লোহা জাতীয় কিছু খুঁজে নিয়ে আছি এইবলে নাইম গেল ওইটা খুজতে আয়সা কে মাটিতে রাখতে

এইদিকে নাইম খুঁজতে থাকুন ততক্ষণ আমরা জেনে আসি কেন নাইম এমন করছে আর আয়সাই বা কে কেন তাকে ধর্ষণ করতে চাচ্ছে
মরীচিকাময় ভালোবাসা পর্বঃ-০৩

নাইম ইন্টার ফার্স্ট ইয়ারে পড়ে আর এতক্ষণ যার কথা বললাম সেটা হলো আয়সা সেও নাঈমের সাথেই পড়ে একোই কলেজে নাইম আয়সার পিছনে গত ৪ বছর ধরে ঘোড়ে কিন্তু আয়সা থাকে পাত্তা দেয় না তাই নাঈমের ভালোবাসা টা দিনে দিনে ঘৃণায় পরিণত হয়েছে

আর নাইম দেখতে মাহশাহল্লাহ সুন্দর যে কোন মেয়ে পছন্দ করবে আর নাইম একাই তার কোন ভাই বোন নাই নাঈমের বাবা একজন বিজনেস ম্যান অধিকাংশ সময় তাকে দেশের বাইড়ে থাকতে হয় আর আয়সা দুই বোন আর এক ভাই আয়সা দেখতে অনেক সুন্দর টানাটানা চোখ ,গোলাপি ঠোঁট , ফর্সা দেহ এককথাই পুরাই একটা আসমানের পরী আপাতত এইটুকুই ( কাল্পনিক চরিত্র 😁)

নাইম একটু খুজাখুজির পর একটা ভাঙ্গা ইট খুঁজে পেল যখনই সে যেই আটটা নিয়ে আসলে সেখানে একটা অবাক করা ঘটনা ঘটলো কারণ সেখানে আয়সা নেই আর দরজা টা খোলা তারমানে কেউ আয়সাকে নিয়ে গেছে
পারলে ঠেকাও ( পর্বঃ ২০ )

কারণ তাকে যেই মেডেসিন স্পে দিছি তাতে তার৫,৬ ঘন্টা নিচে জ্ঞান ফিরবে না তাইলে কে নিলো ওহ সিট ওই মেয়েটা নিয়ে যায় নাই তো এইবলে নাইম যেইনা দরজা দিয়ে ভিতরে ঢুকলো তখনই ঘটলো বিরাট একটা ঘটনা যেটার জন্য নাইম মটেও প্রস্তুত ছিল না 😲😲😲



নতুন গল্প সবাই সাপোর্ট করবেন আর ভালো লাগলে কমেন্ট শেয়ার আর রিভিউ করবেন 💔


ভূতুড়ে বাংলো বাড়ি রহস্য (পর্ব-০২) - নাঈম চৌধুরি

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

দয়া করে স্পাম করা থেকে বিরত থাকুন।